বালিকার ধর্ষণে ধর্ষকদের শাস্তি এবং ন্যায় বিচারের দাবিতে হলদোয়ানিতে ধর্ণা

UKD

উত্তরাখণ্ডের জৌনপুরের তিহিরিতে ৯ বছরের দলিত বালিকা ধর্ষিতা হয়। এই ধর্ষণকাণ্ড ঘটার পর গ্রাম পঞ্চায়েতে আধিপত্যকারী জাতের সামন্ততান্ত্রিক শক্তিগুলোর ভূমিকা, স্বাস্থ্য দপ্তর, পুলিশ, প্রশাসন এবং রাজ্য সরকারের ভূমিকার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সিপিআই(এমএল) ৭ জুন হলদোয়ানির আম্বেদকর পার্কে একদিনের ধর্ণা সংগঠিত করে। এদের ভূমিকায় তীব্র ধিক্কার জানিয়ে সিপিআই(এমএল)-এর রাজ্য সম্পাদক রাজা বহুগুণা বলেন, হাসপাতালে ভর্তির তিন ঘন্টার মধ্যেই ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় এবং তারপর ধর্ষকের সঙ্গে একই জিপে তাকে শতাধিক মাইল নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশের কাছে রিপোর্ট না করার জন্য গ্রাম পঞ্চায়েতের সামন্ততান্ত্রিক শক্তিগুলো মেয়েটির উপর যে চাপ দেয় তা এই অঞ্চলে সামন্ততান্ত্রিক আধিপত্যেরই এক ঘৃণ্য দৃষ্টান্ত। তিনি জানান, কিছুকাল আগে এই অঞ্চলে প্রতাপশালী আধিপত্যকারী জাতগুলো এক দলিত যুবককে পিটিয়ে মারে, তার অপরাধ ছিল এই যে, সে একটা বিয়ের অনুষ্ঠানে চেয়ারে বসে খাবার খাচ্ছিল।

ধর্ষিতা বালিকাটির মা জানিয়েছে, ৪ বছর আগে ঐ গ্রামেই আধিপত্যকারী জাতের লোকজন এক দলিত বালিকাকে ধর্ষণ করার পর হত্যা করে এবং তাদের প্রভাব খাটিয়ে গোটা ব্যাপারটাকে ধামাচাপা দেয়। আম্বেদকর পার্কে ধর্ণা সংগঠিত হওয়ার পর নিম্নলিখিত দাবিগুলি জানিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে একটি স্মারকলিপি পাঠানো হয় —

(১) ধর্ষণের শিকার বালিকাটি এবং ধর্ষককে এই জিপে নিয়ে যাওয়ার জন্য আইজি এবং অন্যান্য পুলিশ অফিসারদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। পকসো আইন অকুস্থলেই মেয়েটির জবানবন্দি নেওয়ার কথা বলে — তা না করে ধর্ষকের সঙ্গে একই গাড়িতে ভ্রমণের নিপীড়ন তাকে ভোগ করতে বাধ্য করা হয়। (২) পুলিশের কথা মেনে মেয়েটির চিকিৎসায় অবহেলা করায় জড়িত স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্তাব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। (৩) মেয়েটি এবং তার পরিবারকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক নিরাপত্তা দিতে হবে; নিজের পায়ে দাঁড়াতে এবং স্বনির্ভর না হওয়া পর্যন্ত রাজ্য সরকারকে মেয়েটিকে মদত জুগিয়ে যেতে হবে। (৪) এই অঞ্চলে যারা দলিতদের বিরুদ্ধে বৈষম্য ও নিপীড়ন চালাচ্ছে এসসি/এসটি আইনে তাদের আটক করতে ও তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। (৫) রাজ্য সরকারকে দলিতদের বিরুদ্ধে নিপীড়নের ঘটনাগুলি বন্ধ করতে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে এবং আধিপত্যকারী জাতগুলোর দুষ্কৃতীদের রাজনৈতিক সুরক্ষা বন্ধ করতে হবে। (৬) ধর্ষণের এই ঘটনাটিতে এবং জৌনপুর অঞ্চলে দলিতদের বিরুদ্ধে সংঘটিত নিপীড়নের অন্যান্য ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত করতে হবে।

খণ্ড-26
20-06-2019