মুর্শিদাবাদের গ্রামে টিএমসি-পুলিশের সন্ত্রাস

মুর্শিদাবাদ জেলার এমজি ব্লকের নতুন গ্রাম পঞ্চায়েতের খোরদীঘি গ্রামে দীর্ঘদিন যাবত কোনো বৈঠক হয়নি। এখন গ্রামে চলো কর্মসূচিকে ধরে গত ৬ সেপ্টেম্বর গ্রামে বৈঠক ডাকা হয়। বৈঠকে মহিলা সহ ২০ জন অংশ গ্রহণ করে। আলোচনায় উঠে আসে গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে ১০০ দিনের কাজ দেওয়া হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর নিয়ে দলবাজি দুর্নীতি চলছে। বার্ধক্য ভাতা ও বিধবা ভাতা দেওয়া হচ্ছে না। বিদ্যুতের দাম কমানোর দাবি ওঠে। ঠিক হয় পঞ্চায়েতে ডেপুটেশন দেওয়া হবে। সেই অনুযায়ী পরে পঞ্চায়েতে জানাতে গেলে প্রধান বলে পরে আলোচনা করে তারিখ জানিয়ে দেওয়া হবে। আর সেই দিনই রাত ৩টার সময় মুর্শিদাবাদ থানার পুলিশ যেই বাড়িতে বৈঠক করা হয়েছে সেই বাড়ির মালিককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। পরের দিন সকালে সিপিআই(এমএল)-এর জেলা সম্পাদক ও অন্যান্য কমরেডরা থানায় উপস্থিত হয়ে জানতে চাইলে পুলিশ কোনো ওয়ারেন্ট বা অভিযোগ দেখাতে পারে না। আমতা আমতা করে প্রশ্ন এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এবং কোনো রকম কেস না দিয়ে ছেড়ে দেয়। আসলে তৃণমূল নেতারা পুলিশকে কাজে লাগিয়ে সন্ত্রাস সৃষ্টি করতে চাইছে। বার বার চেষ্টা করেও তৃণমূল প্রধান থেকে এখনও ডেপুটেশনের তারিখ পাওয়া সম্ভব হল না। সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হচ্ছে।

খণ্ড-26
সংখ্যা-29
19-09-2019