বালিতে আইসার প্রতিষ্ঠা দিবস পালন

aisa bally

আগের দিন থেকেই শুরু হয়েছিল রাত জেগে প্রস্তুতি। ছাত্র কমরেড দের অদম্য ভালোবাসা ও আবেগে ভর করে বালি জোড়া অশ্বত্থতলা মোড় এবং সিপিআই(এমএল)-এর বালি অফিসের সামনের চত্বর রাঙিয়ে তোলা হয় আবেগের লাল রঙে। আইসার সংগ্রামের ২৯তম বছরে এবং ভারত ছাড়ো আন্দোলনের সূচনার দিনে বালি অফিসে ভোর থেকেই ছিল কর্মব্যস্ততা। বিভিন্ন গণসঙ্গীতে মুখরিত ছিল অফিস চত্বর। স্কুল শুরু হওয়ার সময়ে বেলা সাড়ে ১০টায় রাস্তায় বহু সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে দিয়ে স্কোয়াড মিছিল করে বালি-বেলুড় আইসার কমরেডরা স্লোগানে মুখরিত হয়ে পৌঁছায় শহীদবেদীতে। ততক্ষণে ছাত্রদের অন্য একটা টিম সাজিয়ে তুলেছে শহীদবেদী ও তৎসংলগ্ন অঞ্চল। জোনাল ইউনিটের পক্ষ থেকে তিয়াসা রক্ত পতাকা উত্তলন করে ও মাল্যদান করে। পরে পার্টির স্থানীয় সদস্যরা এবং ছাত্ররা শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে শহীদ বেদীতে। ভারতছাড়ো আন্দোলন এবং আজকের সংগ্রামের ওপর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন সিপিআই(এমএল)-এর পক্ষ থেকে আমিতাভ ব্যানার্জী। আইসার থেকে নাগাসাকি দিবসের গুরুত্ব ও দেশে চলা চরম রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখে অঙ্কিত। শেষে সমবেত ভাবে মোদী বিরোধী স্লোগানের মধ্যেদিয়ে সভা শেষ হয়। স্লোগান চলাকালীন বহু পথচলতি মানুষ দাঁড়িয়ে পড়েন ও দেখেন এই অকুতোভয় ছাত্রযুবদের নবযুুগ আনার আকাঙ্ক্ষাকে।

খণ্ড-26
সংখ্যা-25
22-08-2019